মাত্র পাওয়া

লক্ষ্মীছড়িতে গৃহবধুকে যৌন হয়রানি ও ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগ

| ১১ সেপ্টেম্বর ২০২০ | ১০:২৪ পূর্বাহ্ণ

লক্ষ্মীছড়িতে গৃহবধুকে যৌন হয়রানি ও ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগ

নিজস্ব প্রতিবেদক,খাগড়াছড়িঃ খাগড়াছড়ির লক্ষ্মীছড়িতে এক গৃহবধুকে যৌন হয়রানীর অভিযোগ উঠেছে নূরে আলম নামে স্থানীয় এক আওয়ামীলীগ নেতার বিরুদ্ধে।

বুধবার ৯ সেপ্টেম্বর উপজেলার মেজর পাড়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। অভিযুক্ত নূরে আলম লক্ষ্মীছড়ি উপজেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক।

সরেজমিনে খোঁজ নিয়ে জানা যায়, নূরে আলমের নামে এ ধরণের ঘটনার অভিযোগ নতুন কিছু নয়। বুধবার তিনি নিজের ভাগ্নী সম্পর্কের এক নিকট আত্মীয়কে বাড়িতে একা পেয়ে নানা ভাবে যৌন হয়রানী ও অনৈতিক কাজ করার প্রস্তাব দেয় এবং শরীরের স্পর্শকাতর স্থানে হাত দিয়ে শারীরিক শ্লীলতাহানির চেষ্টা করে। এমনকি সন্ধ্যায় তার দরিদ্র বাবা মোঃ রাব্বানী ও মামা আজিজুল হকের সাথে যোগাযোগ করে ওই গৃহবধূর সাথে অনৈতিক সম্পর্ক করার সহযোগিতার বিনিময়ে আর্থিক প্রলোভনে প্রলুব্ধ করার চেষ্টা করে। কিন্তু ঐ গৃহবধু ও তার পরিবার এ ঘটনার বিরুদ্ধে স্বোচ্ছার থেকে প্রতিবাদ করে এবং গ্রামবাসীকে এই ঘটনা সম্পর্কে অবহিত করে।

এই ঘটনায় এলাকায় জনমনে ব্যাপক ক্ষোভ ও চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে। অভিযুক্ত নূরে আলম ও তার সহযোগীরা এই ঘটনা ধামাচাপা দিতে গৃহবধূর পরিবারকে প্রাণনাশের হুমকি সহ এলাকা থেকে উচ্ছেদের হুমকি প্রদান করে এবং মুখ বন্ধ রাখার জন্য নানাবিধ হুমকি ধামকি দিয়ে যাচ্ছে।

এ বিষয়ে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক স্থানীয় এক ব্যাক্তি অভিযোগ করে বলেন , দলের সাইন বোর্ড ব্যবহার করে নূরে আলম লক্ষ্মীছড়িতে,চাঁদাবাজী, ধান্ধাবাজি,ভূমি জালিয়াতি, এলাকার উঠতি বয়সী কিশোরী ও নারীদেরকে যৌন হয়রানি থেকে শুরু করে বিভিন্ন অপকর্মে জড়িত। তার অপকর্মে এলাকাবাসী অতিষ্ঠ বলে জানায় নাম প্রকাশ না করার শর্তে লক্ষ্মীছড়ির বিভিন্ন শ্রেণী-পেশার মানুষ। এর আগেও সে একই ধরণের একাধিক ঘটনা ঘটিয়েছে বলে তারা জানায়।

উল্লেখ্য, এর আগেও গত ১৮ আগস্ট রাত নয়টায় মগাইছড়ির মুসলিমপাড়া গ্রামের নিপা বেগমকে স্বামীর অনুপস্থিতির সুযোগে অভিযুক্ত নূরে আলম জোরপূর্বক শ্লীলতাহানির চেষ্টা করে। এই ব্যাপারে ভুক্তভোগী নিপা বেগম লক্ষ্মীছড়ি থানায় লিখিত অভিযোগ করে।

অভিযোগের সত্যতা সম্পর্কে জানতে লক্ষ্মীছড়ি উপজেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক নূরে আলমের সাথে যোগাযোগ করলে তিনি বলেন, নিজের আত্মীয়ের মধ্যে ভুল বুঝাবুঝি হয়েছে। তবে তিনি ঐ গৃহবধুকে যৌন হয়রানীর বিষয়টি অস্বীকার করেন। বিষয়টি স্থানীয়ভাবে সমাধানের চেষ্টা করছেন বলে তিনি জানান।

এই ব্যাপারে লক্ষ্মীছড়ি উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ও খাগড়াছড়ি জেলা পরিষদ সদস্য রেম্রাচাই চৌধুরীর সাথে যোগাযোগ করলে তিনি বলেন, বিষয়টি আমি লোকমুখে শুনেছি এবং বিষয়টি খতিয়ে দেখে অভিযোগ প্রমাণ হলে নূরে আলমের বিরুদ্ধে উপযুক্ত ব্যবস্থা নেওয়া হবে ।

লক্ষ্মীছড়ি থানার ওসি হুমায়ুন কবির জানান, মামা-ভাগ্নির মধ্যকার একটি বিষয়ে লিখিত অভিযোগ এসেছে। বিষয়টি তদন্ত করে প্রয়োজনীয় আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলে তিনি জানান।

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

০৫ ফেব্রুয়ারি ২০২০

error: Content is protected !!