মাত্র পাওয়া

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া সুচিকিৎসা পাচ্ছেন না : ফখরুল ইসলাম আলমগীর

| ০১ আগস্ট ২০২০ | ৩:৪৭ অপরাহ্ণ

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া সুচিকিৎসা পাচ্ছেন না : ফখরুল ইসলাম আলমগীর

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া সুচিকিৎসা পাচ্ছেন না বলে অভিযোগ করেছেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। তিনি বলেন, দেশনেত্রী জামিনেমুক্ত থাকলেও দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া সুচিকিৎসা পাচ্ছেন না। কারণ এই মুহূর্তে দেশের হাসপাতাল গুলোতে যাওয়া যাচ্ছে না এবং বিদেশে চিকিৎসা নেওয়ার মতো কোনো সুযোগ পাচ্ছেন না। ফলে বাস্তবিক অর্থে তার স্বাস্থ্যের যে উন্নতি হওয়ার কথা ছিল তা হচ্ছে না। বিদেশে চিকিৎসা নেয়ার মতো সুযোগ পেলে বিদেশে নিয়ে চিকিৎসা করবেন কিনা সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে মির্জা ফখরুল কোন উত্তর দেননি।

শনিবার (১ আগস্ট) সকাল ১১ টায় দলের স্থায়ী কমিটির সদস্যদের নিয়ে শেরে বাংলা নগরে অবস্থিত বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমানের মাজার জিয়ারত শেষে তিনি এসব কথা বলেন। এ সময় আরো উপস্থিত ছিলেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, ব্যারিস্টার মওদুদ আহমেদ, মির্জা আব্বাস, গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, নজরুল ইসলাম খান, বেগম সেলিমা রহমান, ইকবাল হাসান মাহমুদ টুকু, বিএনপি চেয়ারপারসনের মিডিয়া উইং কর্মকর্তা শামসুদ্দিন দিদার ও শায়রুল কবির খান।

বন্যা পরিস্থিতি নিয়ে সরকারের প্রতি বিএনপির কি আহ্বান থাকবে এমন প্রশ্নের জবাবে মির্জা ফখরুল বলেন, আপনারা জানেন ইতিমধ্যে আমাদের জাতীয় স্থায়ী কমিটির যে সভা হয়েছে সেই সভায় আমরা বন্যার্তদের পাশে দাঁড়ানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছি এবং সে অনুযায়ী সারাদেশের নেতাকর্মীদের তাদের পাশে থাকার নির্দেশ দিয়েছে। আমরা সরকারকে আহ্বান জানিয়েছে উদাসীনতা ও অবজ্ঞা বাদ দিয়ে তারা যেন অবিলম্বে বন্যা কবলিতদের শুধু ত্রাণ নয় পূর্নবাসনের ব্যবস্থা করেন।

এবারের বন্যা দীর্ঘস্থায়ী হবে বলে অনেকে আশঙ্কা করছেন। সেক্ষেত্রে তাদেরকে লংটাইম পরিকল্পনা নিতে হবে। যেটা তারা কখনোই করেন না এবং অন্যের মতামতকে কখনোই প্রাধান্য দেন না। আমরা আমাদের যে সীমাবদ্ধতা আছে তার মাঝে বন্যা দুর্গতদের পাশে দাঁড়ানোর জন্য আমরা কমিটি করেছি এবং আমাদের কাজ চলছে। বন্যা পরিস্থিতি মোকাবেলায় সরকারের নেওয়া পদক্ষেপ পর্যাপ্ত মনে করেন কিনা এমন প্রশ্নের জবাবে ফখরুল বলেন, মোটেও না।

বিএনপি মহাসচিব বলেন, এই করোনা পরিস্থিতির সাথে আমরা পরিচিত ছিলাম না। সেই পরিস্থিতিতে আজ ঈদের দিন আমাদের দলের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী দলের স্থায়ী কমিটির সদস্যদের স্বাধীনতার ঘোষক শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমানের মাজার জিয়ারত করতে এসেছি।

তিনি বলেন, দেশনেত্রী খালেদা জিয়া যখন সুস্থ ছিলেন এবং কারাগারের বাহিরে ছিলেন তখন প্রতিবার আমরা তাকে নিয়েই মাজারে এসেছি। দুর্ভাগ্য আজকে দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া একটি সম্পূর্ণ মিথ্যা মামলায় তাকে আটক করে রাখা হয়েছে এবং বিভিন্ন প্রকার শর্ত আরোপ করে রাখা হয়েছে। আমরা বরাবরই যখন মাজার জিয়ারত করতে আসি তখন আমাদের সাথে হাজার হাজার নেতা কর্মীরা থাকেন। কিন্তু আজকে এই কোভিড-১৯ এর কারণে সামাজিক দুরত্ব বজায় রাখার লক্ষে এবং আমাদের নেতাকর্মী ও জনগনের নিরাপত্তার স্বার্থে আমরা সিদ্ধান্ত নিয়েছি কোথাও কোনো সমাবেশে অংশগ্রহণ করব না। ফখরুল বলেন, তাই আজকে শুধুমাত্র দলের জাতীয় স্থায়ী কমিটির সদস্যদের নিয়ে আমাদের প্রতিষ্ঠাতা মাজার জিয়ারত করতে এসেছি

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

০৫ ফেব্রুয়ারি ২০২০

আকাইর্ভ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১১২১৩১৪১৫১৬
১৭১৮১৯২০২১২২২৩
২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০
৩১  

আজকের দিন-তারিখ

  • বৃহস্পতিবার (রাত ১১:৪৪)
  • ১৩ই আগস্ট ২০২০ খ্রিস্টাব্দ
  • ২৩শে জিলহজ ১৪৪১ হিজরি
  • ২৯শে শ্রাবণ ১৪২৭ বঙ্গাব্দ (বর্ষাকাল)

হাসবি রাব্বি জাল্লাল্লাহ

চোখের জল ধরে রাখা অসম্ভব:– ফজলুর রহমান বাবু

error: Content is protected !!