মাত্র পাওয়া

বডি শেমিং কে “না” বলুন…

| ১৭ জুলাই ২০২১ | ৬:১৫ অপরাহ্ণ

বডি শেমিং কে “না” বলুন…

“বডি শেমিং ” আপনি,আমি, আমরা প্রতিনিয়ত এই বডি শেমিং এর স্বীকার হচ্ছি। আর যাদের দ্বারা হচ্ছি তারা আর কেউ নয় এই আপনি, আমি,  আমরাই। আপনি হচ্ছেন আমার দ্বারা আমি হচ্ছি আপনার দ্বারা। পার্থক্য টা হলো আপনি যখন আমাকে বডি শেমিং করছেন তখন আমার কাছে মনে হয় এটা “বডি শেমিং”  কিন্তু আমি যখন আপনাকে করছি তখন সেটা আর বডি শেমিং মনে হয়না।
এখন অনেকের মনে প্রশ্ন বডি শেমিং টা আসলে কি? বা সমস্যা কী? সংজ্ঞা অনুযায়ী আপনি যদি কারও দেহের আকার, আয়তন বা ওজন নিয়ে প্রকাশ্যে এমন কোনাে সমালােচনা বা মন্তব্য করেন যাতে সেই মানুষটি লজ্জাবােধ করেন বা অপমানিত হন তবে তা বডি শেমিং।
আমাদের সাথে যখন কারো দেখা হয় আমরা সর্বপ্রথম এই বডি শেমিং দিয়ে আলোচনা শুরু করি। যেমন- কিরে বন্ধু কি অবস্থা তর? তুইতো অনেক শুকিয়ে গেছিছ, তর চোখের নিচে এমন কালি পড়লো কেমনে? তরতো অল্প বয়সে  চুল পেকে যাচ্ছে ? তর কণ্ঠ এমন মুরগি বাচ্চার মতো হলো কেমনে? তুই এতো কালো হয়েছিছ কেমনে?  তর মুখের এই অবস্থা কেন?
মেয়েদের ক্ষেত্রে – তুমার মুখে এমন কালো দাগ পড়লো কিভাবে?  মুখের যত্ন নাও না হয় বিয়ের সময় কিন্তু সমস্যা হবে।  তুমার চুলগুলো এতো খাটো কেন?মেয়েদের চুল এতো খাটো ভালো দেখায় না।
 তুমি এমন চিকন হলে কিভাবে? হরিণের বাচ্চার মতো হয়েগেছো। এখনো সময় আছে পুষ্টিকর খাবার খাও।  মেয়েরা এতো চিকন কেমন দেখায়..!
তুমার শরীর বেড়ে যাচ্ছে।  ডায়েট করো পরে কিন্তু বিয়ের সময় প্রস্তাতে হবে। আমার পাশের বাসার কলিগের মেয়ের শুধুমাত্র এই মোটা হওয়ার কারণে এখন পর্যন্ত বিয়ে হয়নি।
আমরা যখন কাউকে শারিরীক গঠন নিয়ে এধরণের প্রশ্ন করি বা উপদেশ দেয় তখন সেই ব্যক্তি নিশ্চুপ থাকে অথবা হাসিমুখে কিছু  একটা  বলে উড়িয়ে দেওয়ার চেষ্টা করে। কিন্তু   আপনি বুঝতে পারবেন যদি আপনি কখনো এরকম প্রশ্ন আর উপদেশের সম্মুখীন হন এটা কতটা বিব্রতকর,  কতটা কষ্টের, কতটা মানসিক চাপ ফেলে। আপনি হয়তো ভাবছেন আমিতো তার ভালোর জন্যই বলছি, আমিতো তার খারাপ চাইনা। কিন্তু আদো কি তার জন্য এটা  ভালো কিছু বয়ে আনে? গবেষণায় দেখা গেছে একজন মানুষ বডি শেমিং এর ফলে একধরনের মানসিক চাপ অনুভব করে যার ফলে তার শারীরিক এবং মানসিক আরো অবনতি  ঘটে।
তাই  যা বলে মানুষের উপকার করার চেষ্টা করতে যাচ্ছেন তা যদি তার জন্য ভালো না হয় বরং কষ্টের কারণ হয় তাহলে না বলাই ভালো। এতো কঠিন ভালোকিছু না করে এমন অনেক কাজ আছে যা খুব সহজে আপনি করতে পারেন  যা আপনার জন্য,  মানুষের জন্য এবং জাতির জন্য মঙ্গল সেগুলো করুন।
ভালো থাকুন, সুস্থ থাকুন এবং অন্যকে ভালো থাকা এবং সুস্থ থাকার পরিবেশ সৃষ্টি করে দিন।
লেখক: ইমরান হোসাইন 
গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগ 
কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়। 

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

Calendar

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১১২
১৩১৪১৫১৬১৭১৮১৯
২০২১২২২৩২৪২৫২৬
২৭২৮২৯৩০৩১  

এক ক্লিকে বিভাগের খবর

div1 div2 div3 div4 div5 div6 div7 div8
  • Our Visitor

    0 0 2 2 1 8
    Users Today : 33
    Users Yesterday : 47
    Users Last 7 days : 132
    Users Last 30 days : 573
    Users This Month : 111
    Users This Year : 2217
    Total Users : 2218
    Views Today : 36
    Views Yesterday : 99
    Views Last 7 days : 278
    Views Last 30 days : 1105
    Views This Month : 207
    Views This Year : 3288
    Total views : 3289
    Who's Online : 2
    Your IP Address : 54.144.55.253
    Server Time : 2021-12-05